পাবনা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে দুই জ্বীনের বাদশা গ্রেফতার

পাবনা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে দুই জ্বীনের বাদশা গ্রেফতার

পাবনা থেকে শরিফুল ইসলামঃ-
পাবনা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের বিশেষ অভিযানে প্রতারক চক্রের দুই জ্বীনের বাদশা গ্রেফতার।
মোঃ আরব আলী প্রাং (৬৫), পিতা-মৃত আছের উদ্দিন প্রাং, সাং-সারোরা পূর্বপাড়া, ইউনিয়নঃ মথুরাপুর, থানাঃ চাটমোহর, জেলাঃ পাবনা চাটমোহর থানায় গিয়ে অভিযোগ করেন যে, সে চাটমোহর থানাধীন চাটমোহর পৌরসভার অন্তর্গত চাটমোহর নতুন বাজারে নাইট গার্ডের চাকুরী করে। গত প্রায় ০৬ মাস পূর্বে মোঃ আরব আলী চাটমোহর নতুন বাজারে রাত্রীতে ডিউটি করাকালীন সময় গভীর রাত্রীতে তার ব্যবহৃত মোবাইল নম্বরে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি জ্বীনের বাদশা পরিচয় দিয়া তাকে আল্লাহর নামে শপথ করাইয়া ধর্মীয় ভাবে ইসলামের নানা বিষয়ে মিথ্যা বুঝাইয়া ও প্রলোভন দেখাইয়া তার ধর্মীয় বিশ্বাসকে পুঁজি করিয়া জ্বীনের বাদশা পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন অজুহাতে তার নিকট হইতে বিকাশের মাধ্যমে সর্বমোট ৬,০০,০০০/-( ছয় লক্ষ) টাকা হাতিয়ে নেয়। উপরোক্ত ঘটনা কাউকে জানাইলে তার পরিবারের যেকোন সদস্য মারা যাইবে বলিয়া ভয় দেখাইয়া বিষয়টি তাকে গোপন রাখিতে বাধ্য করে। পরবর্তীতে ১৩/০৫/২০২৩ইং তারিখ বেলা ১১.৫১ ঘটিকার সময় পুনরায় কল করিয়া জ্বীনের বাদশা পরিচয় দিয়ে জায়নামাজ কেনার জন্য ২১,০০০/- টাকা দাবি করে।অতঃপর বাদী চাটমোহর থানায় উক্ত প্রতারনা ও কথিত অজ্ঞাতনামা জ্বীনের বাদশার বিরুদ্ধে অভিযোগ করিলে চাটমোহর থানার মামলা নং-১৩ তারিখঃ ১৪/০৬/২০২৩ ইং, ধারা ৮০৬/৪২০ পেনাল কোড ১৮৬০ রজু হয়।

পরবর্তীতে পাবনা জেলার পুলিশ সুপার মোঃ আকবর আলী মুন্সীর নির্দেশে আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) মোঃ মাসুদ আলম এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ জিয়াউর রহমান (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) এর সার্বিক তত্বাবধায়নে ওসি ডিবি মোঃ এমরান মাহমুদ তুহিন এর নেতৃত্বে এসআই সাগর কুমার সাহা সহ পাবনা ডিবির একটি চৌকশ টিম পাবনা, গাইবান্ধা এবং বগুড়া জেলার বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করিয়া উক্ত জ্বীনের বাদশা চক্রের সদস্য দের গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।
গ্রেফতার কৃতরা হলোঃ-
১. মোঃ আব্দুর রশিদ (৫০) পিতাঃ মৃত জহির উদ্দিন সাং-মিরুপাড়া, থানাঃ গোবিন্ধগঞ্জ, জেলাঃ গাইবান্ধা, ২। মোঃ আবু মিয়া (৩৮) পিতাঃ মৃতঃ সাফায়াতুল্লাহ প্রাং, সাং-মিরুপাড়া, থানাঃ গোবিন্ধগঞ্জ, জেলাঃ গাইবান্ধা

পরবতীতে আসামীর তথ্যের ভিত্তিতে তাদের নিকট হইতে মোবাইল ফোন এবং যে সকল বিকাশ নম্বরে টাকা নিয়েছে সই সকল মোবাইল সিম উদ্ধার করা হয়।
জিনের বাদশা নামক প্রতারক চক্রটি দীর্ঘদিন যাবত জ্বীনের বাদশা পরিচয় প্রদান করে গভীর রাতে নিরহ সহজ সরল ধর্ম প্রান মুসলমাদের ধর্মীয় অনুভুতিকে কাজে লাগিয়ে এবং গুপ্তধন পাইয়ে দেওয়ার লোভ দেখিয়ে ও জ্বীন দ্বারা প্রান নাশের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে বিভিন্ন অজুহাতে বিকাশের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নিতো।

Please Share This Post in Your Social Media


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *